ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে শিবালয় উপজেলা আ. লীগ নেতা নকুল চন্দ্র কারাগারে

নিউজ দর্পণ,মানিকগঞ্জ: কলেজশিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনোরঞ্জন শীল নকুলকে (৫০) গ্রেপ্তারের পর আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

কলেজশিক্ষার্থীর লিখিত অভিযোগের পর গতকাল শুক্রবার বিকেলে মনোরঞ্জন শীলকে তার নিজ বাড়ি থেকে আটক করে পুলিশ। নকুল চন্দ্র শীল শিবালয় নতুন পাড়ার মঙ্গল শীলের ছেলে।

শিবালয় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুস বলেন, ‘ঘটনা সত্য হলে দলীয় সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার দুপুরে নকুল প্রতিবেশী ওই কলেজশিক্ষার্থীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় শিক্ষার্থীর চিৎকারে পাশের ঘর থেকে নকুলের স্ত্রী এগিয়ে এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে। শিক্ষার্থীর মা বলেন, ‘এ ঘটনা চাপা দিতে নকুল আমাদের ৫ হাজার টাকা দিয়ে কাউকে কিছু না বলতে নিষেধ করেন। কাউকে কিছু বললে কিংবা পুলিশকে জানালে সমস্যা হবে বলেও হুমকি দেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘নকুল এর আগেও বিভিন্নভাবে হয়রানি করেছেন। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার চাই।

জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান বলেন, ‘নকুল চন্দ্র শীলের বিরুদ্ধে শিবালয় থানায় ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ দায়ের করেন এক কলেজ শিক্ষার্থী। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আইনগত প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *