চমেকে রোগীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, আটক ১

নিউজ দর্পণ, চট্টগ্রাম : ডায়ালাইসিস ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে বিক্ষোভ করেছেন রোগীরা। একপর্যায়ে পুলিশের সঙ্গে তাদের বাকবিতণ্ডা ও সংঘর্ষ হয়। এতে কয়েকজন রোগী আহত হন। এ ঘটনায় পুলিশের ওপর চড়াও হওয়ার অভিযোগে একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

আজ মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) বেলা ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী চমেক হাসপাতালের সামনের এক দোকানদার জানান, ডায়ালাইসিস ফি কমানোর দাবিতে সকালে বিক্ষোভ শুরু করে রোগীরা। একপর্যায়ে তারা চমেকের প্রধান ফটকের সামনের সড়ক অবরোধ করেন। পরে পুলিশ তাদেরকে সড়ক থেকে সরে গিয়ে আন্দোলন করার অনুরোধ করেন। এতে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের কথা-কাটাকাটি হয়।

একপর্যায়ে পুলিশ রোগীদের ওপর চড়াও হয় ও সামনে থাকা কয়েকজনকে মারধর করে। এতে কয়েকজন রোগী আহত হন। তারা সড়ক অবরোধ করার কারণে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। ঘটনাস্থলে থাকা এক নারী কিডনি রোগী বলেন, ধার করে ডায়ালাইসিস করাতে হয়। এখন আমাদের মরে যাওয়া ছাড়া আর কোনো পথ নেই। হাসপাতাল বলছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ফি বাড়িয়েছে। তাহলে সরকার মেশিন কিনতে পারে না। তারা কিনলে তো আমরা কোনোভাবে বাঁচতে পারতাম। আমাদের বিক্ষোভে এসে পুলিশ হামলা করেছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশ উত্তর জোনের উপ-কমিশনার মোখলেছুর রহমান বলেন, ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করা হচ্ছিল। যানচলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় পুলিশ তাদেরকে সরে যেতে অনুরোধ করে। এরইমধ্যে একজন পুলিশের ওপর চড়াও হয়। তাকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে ও সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। জানা গেছে, ভারতের প্রতিষ্ঠান স্যান্ডর চমেক হাসপাতালে কিডনি ডায়ালাইসিস সেন্টার স্থাপন করে। প্রতিষ্ঠানটি এতোদিন ধরে সরকারিভাবে প্রতি সেশনে ৫১০ টাকা ও বেসরকারিভাবে ২ হাজার ৭৯৫ টাকা করে নিয়ে আসছিল। কিন্তু এখন সেটা বেড়ে সরকারিভাবে ৫৩৫ ও বেসরকারিভাবে ২ হাজার ৯৩৫ টাকা হয়েছে। এতে করে কিডনি রোগীরা আন্দোলনে নামে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *