স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে ধর্ষণ, কাউন্সিলরের ভাইসহ আসামি ২

নিউজ দর্পণ, নরসিংদী : নরসিংদীর পলাশ উপজেলায় স্বামীকে আটকে রেখে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় স্থানীয় কাউন্সিলরের ভাইসহ দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।
আজ রোববার সকালে পলাশ থানায় নির্যাতিত ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। তবে অভিযুক্ত ধর্ষক পাপ্পু খন্দকারকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।
জানা যায়, ঘোড়াশাল পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলম খন্দকারের ভাই পাপ্পু খন্দকার। পাপ্পু খন্দকারের অধীনে ভাড়ায় কারচালক হিসেবে চাকরি করতেন নির্যাতিত ওই নারীর স্বামী।
গত ২৬ অক্টোবর রাতে পাপ্পু খন্দকার চালককে আটকে রেখে তার স্ত্রীকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ করেন ওই নারী।
শুক্রবার রাতেও গাড়ির মালিক চালকের স্ত্রীকে নিয়ে আসতে বলেন। এতে রাজি না হলে শনিবার রাতে বিষয়টি পলাশ থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়। পরে রোববার সকালে পাপ্পু খন্দকারকে প্রধান আসামি করে দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।
পলাশ থানার ওসি মো. নাসির উদ্দিন জানান, পাপ্পু খন্দকারসহ দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *