সরকার হামলা-মামলা দিয়ে আমাদের আটকে রাখতে পারবে না:  ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ

নিউজ দর্পণ, ঢাকা:  ফ্যাসিবাদী সরকার আমাদের মামলা দিয়ে দাবিয়ে রাখার চেষ্টা করছে। আমরা তাতে ভয় পাইনা। সরকার মামলা দিয়ে আমাদের আটকে রাখতে পারবে না বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতৃবৃন্দ। এসময় সংগঠনটির যুগ্ম আহ্বায়ক মো রাশেদ খান বলেন, আমাদের পাশেই ছাত্রলীগ অবস্থান নিয়েছে যেকোন সময় হামলা করতে পারে। এসময় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের নেতাকর্মীরা। সমাবেশ শেষে তারা একটি মিছিল নিয়ে শাহবাগের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়।

আজ মঙ্গলবার  জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ আয়োজিত ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে বক্তারা এসব কথা বলেন। তারা আরও জানান, নুরের নামে আজ সকালে আরও দুটি মামলা হয়েছে।

 

বক্তারা বলেন, এ সরকার আমাদের ওপর মামলা করছে, হামলা করছে। বাংলাদেশের মানুষ এসব মেনে নেবে না। আওয়ামী লীগ সরকার যে ফ্যাসিবাদী কায়দায় আজকে রাজত্ব করছে, একটা সময় এটা তারা পারবে না। আমরা কোন দলের বিপক্ষে নই। আমরা মামলা, হামলা, গুম ও এই ফ্যাসিবাদী সরকারের বিরুদ্ধে।

তারা আরও বলেন, আজকে কথায় কথায় সরকার মামলা ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। কেন মামলা দেওয়া হয়? কারণ, যার প্রতিবাদে আছে তাদেরকে থামিয়ে দেওয়ার জন্য। প্রতিবাদের কণ্ঠকে রুদ্ধ করার জন্য। আমরা দেখেছি এই ফ্যাসিবাদী সরকার কিভাবে সাংবাদিকদের কেউ কারাগারে বন্দি করে রেখেছে। আজকের সাংবাদিকরাও স্বাধীন নয়। আপনারা দেখছেন বারবারই আমাদের ওপর হামলা করার চেষ্টা করা হচ্ছে। সুযোগ পেলেই আমাদের ওপর হামলা করবে।

তারা হুঁশিয়ারি করে বলেন, আমরা বলে দিতে চাই, হামলা যতই করেন আমাদেরকে থামানো যাবে না। আমরা খুড়াতে খুড়াতে রাজপথে আসবো। কারণ, আমরা এদেশের মানুষের অনুপ্রেরণা হয়ে জন্ম নিয়েছি। বাংলাদেশের মানুষকে বলতে চাই আপনারা চুপ থাকবেন না। বিশ্বাস রাখেন, আমাদেরকে যদি থামিয়ে দিতে পারে তাহলে আল্লাহর দুনিয়ায় আর কেউ কখনও প্রতিবাদ করতে পারবে না।

দেশের মানুষের প্রতি আহ্বান করে তারা বলেন, এই ছাত্র অধিকার পরিষদ, যুব অধিকার পরিষদ এবং নুরুল হক নুরকে বাঁচিয়ে রাখা আপনাদের কর্তব্য। আপনারা আমাদের পাশে দাঁড়ান, সাহস দিন। আমরা যেন এই দুর্নীতি এবং প্রতিবাদহীন সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলতে পারি।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন যুব অধিকার পরিষদের আহবায়ক যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খাঁনসহ অনেকে। এছাড়াও সমাবেশে সংগঠনটি প্রায় শতাধিক কর্মী উপস্থিত ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *