সমস্যা সমাধানে সৌদি বাদশাহর সঙ্গে কথা বলা উচিত প্রধানমন্ত্রীর

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: সরকারি কর্মকর্তারা বিদেশে গিয়ে লাটসাহেব হয়ে যান মন্তব্য করে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ বলেছেন, সাম্প্রতিক সময়ে তৈরি হওয়া প্রবাসী সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উচিত সৌদি গিয়ে সেখানকার বাদশাহর সঙ্গে সরাসরি কথা বলা।

আজ মঙ্গলবার গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে সৌদি আরব, মধ্যপ্রাচ্য, মালয়েশিয়া ও ইউরোপসহ প্রবাসে বাংলাদেশি শ্রমিকদের কর্মস্থলে আকামা, ভিসা সমস্যা সমাধানে করণীয় শীর্ষক এক সভায় তিনি এ আহ্বান জানান।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টুর সঞ্চালনায় এ সময় অন্যদের মধ্যে কথা বলেন চট্টগ্রামের সৌদি প্রবাসী জয়নাল আবেদিন বাকের।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘বাংলাদেশের উন্নয়নের ভিত্তি গড়েছেন আমাদের দেশের প্রবাসীরা। তাদের প্রতি আমরা সম্প্রতি যে ব্যবহার করছি, তা উদ্বেগের। তাদের প্রতি পুলিশের লাঠিচার্জ জঘন্য অপরাধ। তাদের প্রতি এমন ব্যবহারের পরিবর্তে সরকারের উচিত প্রত্যেকটা প্রবাসীকে সরকারি অর্থে হোটেলে রাখা এবং তারপর সরকারের দায়িত্ব হবে প্রবাসীদের ভিসা ও আকামা সমস্যার সমাধান করা।’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘ঘরে না থেকে সৌদি গিয়ে সৌদি বাদশাহর সঙ্গে দেখা করা উচিত প্রধানমন্ত্রীর। তাদের বুঝিয়ে বলা উচিত আমাদের সমস্যার কথাগুলো। প্রধানমন্ত্রী মুসলিম রাষ্ট্রের একমাত্র নারীনেত্রী। তার একটা গুরুত্ব আছে। ফোনালাপে এ সমস্যার সমাধান হবে না। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী সৌদি গেলে সমস্যাগুলো সমাধানের পাশাপাশি অ্যাম্বাসিতে যে সমস্যা রয়েছে, সেগুলোও তিনি দেখে আসতে পারবেন।’

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘দেড় কোটি প্রবাসী যদি দেশে ফিরে আসে তাহলে বাংলাদেশের অবস্থা খুব একটা ভালো হবে না। এমনিতেই অসংখ্য রোহিঙ্গা আমাদের দেশে অবস্থান করছে। একই সঙ্গে প্রবাসীরা দেশে ফিরে আসলে তাদের জমানো অর্থ ফুরিয়ে যাবে। তখন আরেকটা সংকটের সৃষ্টি হবে। বর্তমানে এমনিতেই ঢাকায় হাঁটার জায়গা নেই, দেড় কোটি মানুষ অতিরিক্ত আসলে এ অবস্থা আরও শোচনীয় হবে।’

তিনি বলেন, ‘সমস্যার সমাধানে মন্ত্রী বা সরকারি আমলাদের পাঠিয়ে কিছু হবে না। সরকারি কর্মকর্তারা বিদেশে গিয়ে লাটসাহেব হয়ে যান। সমস্যার সমাধানের আশা করা যায় না। প্রধানমন্ত্রীকেই এ ব্যাপারে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। শেখ হাসিনা সেখানে গেলে সৌজন্যবোধ এবং তার সম্মানে ও শিষ্টাচারে এ সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে। আমাদের প্রবাসীদের সম্মান দেখানো হবে।’

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি মনে করেন, প্রধানমন্ত্রীর পে ভালো পরামর্শ গ্রহণ করা কঠিন। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, তাকে ঘিরে রয়েছে ভারতীয় র, ইসরায়েল, দেশের গোয়েন্দা এবং বিভিন্ন আমলারা। তবুও উন্নয়নের স্বার্থে তার এই পদপে নেয়া জরুরি। কেননা প্রবাসীরাই আমাদের সুন্দর জীবনযাপনের মূল চাবিকাঠি।

করোনা পরিস্থিতিতে শিাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে জাফরুল্লাহ বলেন, এখন যে শিাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ, এটা ভুল সিদ্ধান্ত। প্রয়োজনে দুই শিফটে কাস পরিচালনা করা যেতে পারে। কিন্তু শিাপ্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দেয়া উচিত।

সভায় সৌদি প্রবাসী জয়নাল আবেদীন বাকের প্রবাসীদের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে কথা বলেন এবং এগুলো সমাধানে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *