রংপুরে বিয়ের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় শ্যালিকাকে কুপিয়ে হত্যা!

নিউজ দর্পণ,রংপুর: রংপুরের পীরগঞ্জে প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে রনি আক্তার নামের এক নারীকে হত্যা করেছে সাবেক দুলা ভাই। নিহত একই উপজেলার আরিজপুর গ্রামের আব্দুস সাত্তারের মেয়ে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই বাদি হয়ে হত্যা মামলা করলেও ঘাতক গ্রেফতার হয়নি। অন্যদিকে নিহতের মরদেহ ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পীরগঞ্জ থানার ওসি সরেশ চন্দ্র জানান, গত শুক্রবার দুপুরে পীরগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডে ঢাকার টিকেট কাটার জন্য আসেন রনি বেগম। এ সময় সেখানে পূর্ব থেকে ওৎপেতে থাকা সাবেক দুলাভাই একই গ্রামের ডিপটি মিয়ার ছেলে শফি মিয়া তাকে প্রকাশ্যে মানুষের সামনে উপর্যপুরি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। এতে তার শরীরের বিভিন্ন অংশ দিয়ে রক্ত ঝরতে থাকে। গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয়রা পীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। শনিবার বিকেলে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ওসি আরও জানান, রনির বড় বোন সাবিনা বেগমকে বিয়ে করেছিলেন শফিউল ইসলাম শফি। কিন্তু তার নজর পড়ে যায় শ্যালিকা রনির ওপর। সে কারণে সাবিনা বেগমকে তালাক দিয়ে রনিকে বিয়ে করার জন্য নানাভাবে উত্যক্ত্য করতেন শফি। উপায়ন্তর না দেখে ঢাকায় গিয়ে পোশাক কারখানায় কাজ নিয়েছিলেন রনি। সেখানে বগুড়ার ধুনট উপজেলার রুবেল নামে এক ছেলের সাথে প্রায় ১ বছর পূর্বে প্রেমের সূত্র ধরে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর বাড়িতে ঈদ করার জন্য এসেছিলেন রনি বেগম। তারা ঢাকায় একসাথে থাকতেন পোশাক কারখানায়।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই মনোয়ারুল ইসলাম বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা করেছেন। তবে এখন পর্যন্ত ঘাতককে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *