ময়মনসিংহে বৃদ্ধকে হত্যা, ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৩

নিউজ দর্পণ, ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে বালু নেয়াকে কেন্দ্র করে আবদুল কাদির মণ্ডল (৬৫) নামের এক বৃদ্ধকে হত্যার ঘটনায় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গতকাল বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাতে উপজেলার স্বদেশী ইউনিয়নের ইটাখোলা নামক স্থান থেকে তাঁদের গ্রেফতার করা হয়। হালুয়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন- উপজেলার স্বদেশী ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান জিহাদ সিদ্দিকি ইরাদ, তার সহযোগী সোহেল মিয়া ও শাহজাদা মিয়া।

গতকাল বুধবার ওই ঘটনায় আব্দুল কাদিরের ছেলে ফরিদ বাদী হয়ে হালুয়াঘাট থানায় ১৬ জনের নামে একটি মামলা দায়ের করেছিলেন। মামলার পর তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে হালুয়াঘাট সার্কেলের জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার খলিলুর রহমানের নেতৃত্বে রাতেই তিজনকে ইটাখোলা নামক স্থান থেকে গ্রেফতার করা হয়।

ওসি মাহমুদুল হাসান জানান, গতকাল বুধবার বিকেল ৪টার দিকে কংশ নদ থেকে ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে উত্তোলিত বালু আনতে লোক পাঠান স্বদেশী ইউপির চেয়ারম্যান জিহাদ সিদ্দিকি ইরাদ। কিন্তু ওই বালু আবদুল কাদিরের জামিতে থাকায় বালু নিতে বাধা দেন তার স্বজনরা। এ খবর পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান জিহাদ সিদ্দিকি প্তি হয়ে দলবল নিয়ে আবদুল কাদিরের ওপর হামলা চালায় ও কুপিয়ে আহত করে। পরে স্থানীয়রা আহত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে মৃত্যু হয় আবদুল কাদিরের।

হালুয়াঘাট থানার ওসি মাহমুদুল হাসান জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া গ্রেফতার হওয়া ইউপি চেয়ারম্যানের নামে পুলিশের ওপর হামলা, মাদক, হত্যা মামলাসহ হালুয়াঘাট থানায় সাতটি মামলা ও চারটি জিডি রয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *