মিলারদের সিন্ডিকেটে বাড়ছে চালের দাম, দাবি পাইকারি বিক্রেতাদের

নিউজ দর্পণ, ঢাকা : খুচরা-পাইকারী বাজার, আড়ৎ ও মিল, কোথাও চালের সঙ্কট নেই। তবুও সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিতে ২ থেকে ৫ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে চালের দাম। এ নিয়ে ভোক্তারা ুব্ধ। পাইকারী বিক্রেতারা বলছেন, চালের সঙ্কট নেই ঠিকই কিন্তু রয়েছে মিলারদের কারসাজি। আর এই কারসাজির প্রভাবেই বাড়ছে দাম।

চাল নিয়ে চালবাজিতে মিলারদের সিন্ডিকেটের অভিযোগ তুললেন পাইকারি বিক্রেতারা। তারা বলছেন, পর্যাপ্ত মজুত থাকার পরও দাম বাড়াটা অযৌক্তিক। রাজধানীর কারওয়ানবাজারে আজ সকালে খবর নিয়ে জানা গেছে, ক্রেতার আশায় বসে আছেন চাল বিক্রেতারা। কিন্তু ক্রেতার দেখা নেই। চালের চাহিদার এমন নিম্নমুখিতার পরও সেটির প্রভাব পড়েছে উল্টো।

সপ্তাহের ব্যবধানে মানভেদে চালের দাম বেড়েছে দুই থেকে পাঁচ টাকা। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি বেড়েছে মোটা চালের। যার মূল ভোক্তা নিম্নআয়ের মানুষ। বিক্রেতারা বলছেন, বাজারে চালের কোনো সংকট না থাকলেও; মিলারদের কারসাজিতে বাড়ছে নিত্য প্রয়োজনীয় এ খাদ্য পণ্যটির দাম।

সরকারি গবেষণা সংস্থা-বিআইডিএস বলছে, প্রতিবছরই আমন ধানের উৎপাদনের আগের এই সময়কে কাজে লাগিয়ে সিন্ডিকেশন করে চালের দাম বাড়ানো হয়। তবে, এ দাম বেশি বাড়বে না বলেও আশা করেন সংস্থাটির মহাপরিচালক। দাম সাধারণ মানুষের হাতের নাগালে রাখতে খোলা বাজারে চাল বিক্রির পরামর্শও দেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *