মির্জা ফখরুল ‘সত্য’ বলতে চান, পারেন না ‘অদৃশ্য কারণে’: কাদের

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: সরকার জনগণকে জিম্মি করে দেশকে অন্ধকারে দিকে ঠেলে দিচ্ছে’- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
একইসঙ্গে মির্জা ফখরুল প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, মির্জা ফখরুল সাহেব সত্যকে সত্য বলতে চান, সাদাকে সাদা আর কালোকে কালোও বলতে চান। কিন্তু কোনও এক অদৃশ্য কারণে তা বলতে পারেন না। আর এজন্যই সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েও সংসদে যেতে পারেননি। ফখরুল সাহেব রাজনীতির কারণে যা বলেন, তা তিনি নিজেও বিশ্বাস করেন না। জনমনেও এমন সংশয় রয়েছে।
ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘দেশের মানুষ জিম্মি নয় বরং দেশের মানুষ এখন ঐক্যবদ্ধ ‘হাওয়া ভবনতন্ত্রের’ জুলুম ও মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে।
আজ শুক্রবার সকালে তাঁর সরকারি বাসভবনে ব্রিফিং তিনি কালে একথা বলেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি বরাবরের মতো সরকারের বিরুদ্ধে অবিরাম অসত্য অভিযোগের তীর ছুঁড়ে যাচ্ছে। বিএনপি দেশের অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি দেখতে পায় না বলেই সরকারের কোনও অর্জন তাদের চোখে পড়ে না।
তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে বাংলাদেশের অর্জনের গল্প বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে যখন প্রশংসিত তখনও বিএনপি অন্ধকার দেখে। যাদের দেখার চোখ নেই। তারাতো চারদিকে অন্ধকার দেখবেই। বিএনপির দৃষ্টিসীমা ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন। তাই তারা ক্ষমতায় যেতে অন্ধকারের চোরাগলি খোঁজে।
দেশের মানুষ ভালো আছেন বলেই শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ওপর জনগণের আস্থা দিন দিন সুদৃঢ় হচ্ছে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘তৃণমূলসহ দেশের মানুষকে উন্নতর জীবন দেয়াই শেখ হাসিনার লক্ষ্য। দেশের অব্যাহত সমৃদ্ধিতে বিএনপির চোখের কোণে বালি জমেছে। দেশের উন্নয়ন এবং এগিয়ে যাওয়ার কথা তাদের কানে জ্বালা ধরায়। তারা শুধু নিজেদের অংশটুকুই শুনতে পায়। অন্য কিছু শুনতে ও দেখতে পায় না।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, মির্জা ফখরুল সাহেব বলছেন- আমি শুধু বিএনপির কথা বলি। আমি বিএনপির বিরুদ্ধে বলি না, বলি বিএনপির মিথ্যাচার ও অপরাজনীতির বিরুদ্ধে। শেখ হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারবের ঢোল পেটানোই এখন বিএনপির নিত্যদিনের রুটিন ওয়ার্ক।
ছাত্রজীবনে নাটক করতেন ওবায়দুল কাদের’- মির্জা ফখরুলের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তা সত্যি নয়। আমি বই লিখেছি, সাহিত্যের অন্যান্য ধারায় যুক্ত ছিলাম। কিন্তু ফখরুল সাহেব ছাত্রজীবনে ভালো অভিনয় করতেন। সেই ধারাবাহিকতা মির্জা ফখরুল সাহেবের রাজনৈতিক জীবনেও প্রভাব ফেলছে বলে মনে করছেন অনেকেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *