মাইন্ড এইড হাসপাতাল নয়, জেলখানা: ডিসি তেজগাঁও

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: রাজধানীর আদাবরে মাইন্ড এইড হাসপাতালটিকে জেলখানা বলে উল্লেখ করেছেন তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ। তিনি বলেন, ‘হাসপাতালটি ঘুরে দেখেছি। এটি কোনো হাসপাতাল বলে মনে হয়নি। হাসপাতালের বারান্দায়ও তারা বানিয়েছে। ওই রুমে বাতাস ঢোকারও কোনো ব্যবস্থা নেই। সেখানে সাধারণ মানুষ গেলেও অসুস্থ হয়ে যাওয়ার কথা।
আজ মঙ্গলবার রাজধানীর আদাবরে মাইন্ড এইড হাসপাতাল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।
ডিসি হারুন-অর-রশীদ বলেন, ‘ওই হাসপাতালে নেই কোনও ডাক্তার, ছিলো না কর্তৃপক্ষের অনুমতি। একটি বাড়ির মধ্যে জেলখানার আদলে গড়ে তোলা হয়েছে হাসপাতাল। তারা দালালের মাধ্যমে বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে রোগী ভাগিয়ে এনে চিকিৎসা দিতো।
আটকদের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘একজন মেধাবী সিনিয়র এএসপিকে নির্মমভাবে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের প্রত্যেককে ৭ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত ডাক্তার নিয়াজ উদ্দিনের নামেও মামলা হয়েছে। তিনি রাজধানীর নিউরোসাইন্স হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।’
পুলিশ সদস্যের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তাকে আমরা ফেরত আনতে পারবো না। কিন্তু আমাদের নৈতিক দায়িত্ব হচ্ছে তার হত্যার বিচার নিশ্চিত করা। নাহলে আমরা বিবেকের কাছে দায়ী থাকবো।
রাজধানী ঢাকায় অবৈধ হাসপাতাল ক্লিনিকের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা প্রয়োজন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘মোহাম্মদপুর, আদাবর, শেরেবাংলা নগরে অনেকগুলো অবৈধ ক্লিনিক গড়ে উঠেছে। তাদের কোনও বৈধ কাগজ নেই। তারা শুধুমাত্র সরকারি হাসপাতাল ও অ্যাম্বুলেন্স ব্যবহার করে রোগী ভাগিয়ে আনে। চিকিৎসার নামে তারা রোগীর সঙ্গে প্রতারণা করছে। অনেকে এ বিষয়ে অভিযোগ করে না। শিগগিরই এ বিষয়ে অভিযান পরিচালনা করা হবে। দালালদের আইনের আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *