বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ বাড়ল ১১ হাজার কোটি টাকা

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: মূল্য সূচক ও বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দাম বৃদ্ধির মধ্য দিয়ে গত সপ্তাহ পার করেছে দেশের শেয়ারবাজার। এতে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগের পরিমাণ বেড়েছে ১১ হাজার কোটি টাকার ওপরে। তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বৃদ্ধির মাধ্যমে এ বিনিয়োগ বেড়েছে।

গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের লেনদেন শেষে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ১০ হাজার ৬১৭ কোটি টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৩ লাখ ৯৯ হাজার ২৭৮ কোটি টাকা। অর্থাৎ ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে ১১ হাজার ৩৩৯ কোটি টাকা।

এর মাধ্যমে টানা দুই সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন বাড়ল ২০ হাজার ৮৪ কোটি টাকা। গত সপ্তাহের আগের সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন বাড়ে ৮ হাজার ৭৪৫ কোটি টাকা। বাজার মূলধন বৃদ্ধির অর্থ তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর শেয়ার ও ইউনিটের দাম সম্মিলিতভাবে ওই পরিমাণ বেড়েছে।

এদিকে, গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ১১৯ দশমিক ৮২ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৪১ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ১০৫ দশমিক ৭৫ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ১৭ শতাংশ। অর্থাৎ দুই সপ্তাহের বড় উত্থানে ডিএসইর প্রধান সূচক বাড়ল ২২৫ পয়েন্ট।

প্রধান মূল্য সূচকরে পাশাপাশি বড় উত্থান হয়েছে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচকের। গত সপ্তাহজুড়ে সূচকটি বেড়েছ ৪৮ দশমিক শূন্য ৩ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৭৮ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ৩৭ দশমিক ৪৩ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ২২ শতাংশ।

এদিকে ইসলামী শরিয়াহ ভিত্তিতে পরিচালিত কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক গত সপ্তাহে বেড়েছে ৩৩ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৯৯ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ১৬ দশমিক ৬৯ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

সবকটি মূল্য সূচকের বড় উত্থানের সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া যে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দরপতন হয়েছে, বেড়েছে প্রায় তার দ্বিগুণের। সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে দামবৃদ্ধির তালিকায় নাম লিখিয়েছে ১৯৫টি প্রতিষ্ঠান। বিপরীতে দাম কমেছে ১০৭টির। আর ৬০টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৮৩৪ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় ৭৭৯ কোটি ৫৯ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন বেড়েছে ৫৫ কোটি ৯ লাখ টাকা বা ৭ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ।

আর গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৪ হাজার ১৭৩ কোটি ৪১ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৩ হাজার ৮৯৭ কোটি ৯৯ লাখ টাকা। সে হিসাবে মোট লেনদেন বেড়েছে ২৭৫ কোটি ৪২ লাখ টাকা।

গত সপ্তাহে ডিএসইর মোট লেনদেনে ‘এ’ গ্রুপ বা ভালো কোম্পানির অবদান ছিল ৭৬ শতাংশ। এছাড়া ‘বি’ গ্রুপের ১৮ দশমিক ৮৭ শতাংশ, ‘জেড’ গ্রুপের ১ দশমিক ৫১ শতাংশ এবং ‘এন’ গ্রুপের ৩ দশমিক ৬৩ শতাংশ অবদান ছিল।

গত সপ্তাহে ডিএসইর মূল বাজারে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হওয়া ১০ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে- বেক্সিমকো, বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস, রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্স, আইএফআইসি ব্যাংক, রূপালী ইন্স্যুরেন্স, ফরচুন সুজ, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, ন্যাশনাল ফিড মিল, অ্যাসোসিয়েটেড অক্সিজেন এবং স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যাল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *