বিএনপির সমাবেশে নেতাকর্মীদের ঢল: পুলিশের লাঠি চার্জ আটক ১৭

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব প্রত্যাহারে সরকারি হঠকারী ও অন্যায় সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে জাতীয় প্রেসক্লাবে জড়ো হয় বিএনপির নেতাকর্মীরা।
আজ শনিবার সকাল থেকেই ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির উদ্দ্যোগে মহানগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে বিএনপি, এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ব্যানার নিয়ে খণ্ড খণ্ড মিছিলসহ প্রেসক্লাবে জড়ো হতে থাকে।
বিএনপির পূর্বঘোষিত প্রতিবাদ কর্মসূচিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দলটির বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী জড়ো হয়। নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়ে জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের প্রতিবাদের স্লোগানে স্লোগানে প্রেসক্লাব চত্বর উত্তাল করে তুলেছে।
এ সময় নেতাকর্মীরা জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের প্রতিবাদে বিভিন্ন ধরনের স্লোগান সম্বলিত ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে আসেন। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে প্রেসক্লাব চত্বরে নেতাকর্মীদের ভিড় বাড়তে শুরু করে।
প্রেসক্লাবে সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপির ১৭ নেতাকর্মী আটক:
বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের প্রতিবাদে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপির ১৭ জন নেতা-কর্মীকে আটক করেছে শাহাবাগ থানা পুলিশ। আটকের বিষয়টি জানান শাহাবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন অর রশীদ। তিনি বলেন, বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করার ঘটনায় ১৭ জনকে আটক করা হয়েছে। তবে আটককৃতদের নাম-পরিচয় জানায়নি পুলিশ। এর আগে, দুপুর সোয়া ১২টার দিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বক্তব্য শুরু করলে লাঠিচার্জ করে পুলিশ।

এ সময় ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমানুল্লাহ আমান ও হাবিবুন্নবী খান সোহেলকে নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবের ভেতরে নিয়ে যান। বিএনপির সমাবেশের শেষদিকে পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করার পর বিএনপি নেতাকর্মীরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন। ফলে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলে। এ সময় কয়েকজনকে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ। এসময় বিএনপির বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন দলটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক কমিটির সদস্য প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, পুলিশ অতর্কিতভাবে বিক্ষোভে অংশ নেয়া নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করেছে। এতে আমাদের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।
পুলিশের লাঠিচার্জে বিএনপির সমাবেশ পণ্ড:
বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে নেতাকর্মীদের ওপর ব্যাপক লাঠিচার্জ করে পুলিশ। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ ঘটনা ঘটে। হট্টগোলের পর পুলিশ লাঠিপেটা করলে সমাবেশ পণ্ড হয়ে যায়।
সকাল থেকেই প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপি নেতাকর্মীরা জড়ো হতে শুরু করেন। পরে দুপুরের দিকে সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশের শেষদিকে হঠাৎ বিএনপি নেতাকর্মীদেও ওপর পুলিশ লাঠিচার্জ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *