বিএনপির নাম শুনলেই ভয়ে আঁতকে উঠছে সরকার: সেলিমা

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: বিএনপির নাম শুনলেই সরকার ভয়ে আঁতকে উঠছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান।
আজ বুধবার সকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের উদ্যোগে খালেদা জিয়া, মির্জা আব্বাস ও আফরোজা আব্বাসের আশু রোগমুক্তি কামনায় অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।
গত ১২ নভেম্বর দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে রাজধানীতে গাড়ি পোড়ানোর অভিযোগে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রসঙ্গে সেলিমা রহমান বলেন, ‘সারা দেশে এখন সরকারের স্টিম রোলার চলছে। সেদিন নয়াপল্টনে বিএনপির কোনও কর্মসূচি ছিলো না। তারপরও সেখানে জলকামানের গাড়ি থেকে শুরু করে পুরো বিএনপি অফিস পুলিশ দিয়ে ঘেরাও করে বিনা উস্কানিতে যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্রদলসহ দলের ৪/৫‘শ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে, মামলা দিয়ে আজকে হয়রানি করছে।
সরকার বিএনপির নাম শুনলেই ভয়ে আঁতকে উঠছে’- এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘কারণ তারা (সরকার) জানে, তাদের পায়ের নিচে কোনও মাটি নেই্। যেকোনও মুহূর্তে গণজাগরণের মধ্য দিয়ে, জাতীয়তাবাদী শক্তির জাগরণের মধ্য দিয়ে এ সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করা হবে।
গত ১২ নভেম্বর রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে গাড়ি পোড়ানোর অভিযোগে দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের ঘটনার নিন্দা জানিয়ে সেলিমা রহমান বলেন, ‘আমাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। সেদিন শুধুমাত্র আমাদের যুবদলের একটা মিছিল ছিলো, সেজন্য তারা হয়তবা অফিসের নিচে অবস্থান করছিলো, উপরে একটা প্রেস ব্রিফিং চলছিলো। আমাদের কোনও রকমের কর্মসূচি ছিলো না।’
ওই মিথ্যা মামলায় অনেকে যারা বরিশালে অবস্থান করছেন বা অন্য কোথাও অবস্থান করছেন তাদেরও আসামি করা হয়েছে, করোনা রোগীকেও আসামি করা হয়েছে। আজকে ইশরাক হোসেন বলেছেন, আইসোলেশনে আছেন কতদিন যাবত, তিনি অসুস্থ। তাকে পর্যন্ত একটি মামলায় এক নম্বর, আরেকটায় তিন নম্বর আসামি করা হয়েছে। এই হলো বর্তমান সরকারের অবস্থা।
সরকারের ‘দুঃশাসন’ থেকে মুক্ত হতে সকলকে ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
এসময় দলের যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, ‘বাংলাদেশ আজকে সব দিক থেকে অসুস্থ। এই দেশ আজ দুর্নীতির দিক থেকে অসুস্থ, গণতন্ত্রের দিক থেকে অসুস্থ, স্বাধীনতার যে মূলমন্ত্র ছিলো, যে ঘোষণা ছিলো সাম্য ও মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায় বিচার, সেই জায়গা থেকেও বাংলাদেশ আজ গভীরভাবে অসুস্থ। বাংলাদেশ দুর্বল হয়ে পড়ছে। অসুস্থ বাংলাদেশকে সবার আগে সুস্থ করে তুলতে হবে। তিনি বলেন, ‘আপনাদের মনে আছে, ২০০৯ সালের কাউন্সিলে আমাদের প্রিয় নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া স্লোগান নির্ধারণ করে দিয়েছিলেন- “দেশ বাঁচাও, মানুষ বাঁচাও”। তিনি এটা বুঝতে পেরেছিলেন যে, দেশ অসুস্থ হবে। এদেশের মানুষ অবহেলা-অযত্নে মারা যাবে, নিপীড়ন-নির্যাতনে মারা যাবে, দুর্ঘটনা, ক্রসফায়ারে মারা যাবে, বোনেরা ইজ্জত সম্ভ্রম হারিয়ে মারা যাবে। যে কারণে তিনি (খালেদা জিয়া) এক কথায় বলে দিয়েছিলেন- “দেশ বাঁচাও, মানুষ বাঁচাও”। দেশকে বাঁচাতে হলে সকলকে আজ ঐক্যবদ্ধ হতেই হবে।
মহিলা দলের সহ-সভাপতি নুরজাহান মাহবুবের সভাপতিত্বে ও সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খানের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বিএনপির নেওয়াজ হালিমা আরলি, নিলোফার চৌধুরী মনিসহ মহিলা দল নেতারা বক্তব্য রাখেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *