বাজার এখন নিয়ন্ত্রণহীন: জিএম কাদের

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: আমদানীর সাথে জড়িত হাতে গোনা কয়েকজন ব্যবসায়ী বাজার মূল্য নিয়ন্ত্রণ করছে বলে মন্তব্য করে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেছেন, আর বাড়তি মূল্যের জন্য মন্ত্রণালয়ের রোষানলে পড়ছে ুদ্র ব্যবসায়ীরা। তিনি বলেন, টিসিবি মাধ্যমে খাদ্যপণ্য বিক্রি করে বাজার নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব নয়। বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে হলে নির্দিষ্ট সময়ে পরিকল্পিতভাবেই নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য আমদানি করতে হবে।

আজ শনিবার জাতীয় পার্টি বনানী কার্যালয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কয়েকশো নেতা-কর্মী জাতীয় সেচ্ছাসেবক পার্টিতে যোগদান উপল্েয আয়োজিত সভায় জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান এ কথা বলেন।

জিএম কাদের বলেন, বাজার এখন নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়েছে। মৌসুমে কৃষকরা কৃষি পণ্যের ন্যায্য মূল্য পায় না কিন্তু সরকারের অব্যবস্থাপনায় সেই পণ্য কয়েক গুন বেশি দামে বিক্রি হয়। এতে হাহাকার হঠে সাধারণ মানুষের মাঝে।

জাপা তীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের বলেন, কয়েক বছর ধরে কোরবানীর চামড়া পানির মূল্যে বিক্রি হয়েছে। অনেকেই বিক্রি করতে না পেরে মাটিতে পুঁতে ফেলেছে চামড়া। চামড়ার ক্রেতা বাড়াতে পারেনি সরকার তাই জাতীয় সম্পদ চামড়া নষ্ট হয়ে গেছে। আর বঞ্চিত হয়েছে এতিম ও ুদ্র ব্যবসায়ী। সরকার জেনে-বুঝেই চামড়া শিল্পকে নষ্ট করেছে। করোনার কারণে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা সহসাই স্বাভাবিক হবে বলে মনে হচ্ছে না। তাই ১৮ কোটি মানুষকে বাঁচাতে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।

বিরোধী দলের উপনেতা বলেন, জাতীয় পার্টি সব সময় দেশ ও মানুষের স্বার্থে সরকারকে সব ধরনের সহায়তা করতে প্রস্তুত আছে। দেশের প্রধান তিনটি রাজনৈতিক দলের মধ্যে জাতীয় পার্টি অত্যান্ত সম্ভাবনাময় রাজনৈতিক শক্তি।

তিনি বলেন, দীর্ঘ দিন রাষ্ট্র মতায় থেকে আওয়ামী লীগ যেমন পদ্মাসেতু, মেট্রো রেলের মত বড় বড় উন্নয়নমূলক প্রকল্প বাস্তবায়ন করে প্রশংসিত হয়েছে। আবার খুন, গুম, ধর্ষন, চাঁদাবাজী ও টেন্ডারবাজীর কারণে তেমনি সমালোচিত হচ্ছে। আর বিএনপি নানা কারণে অনিশ্চিত রাজনৈতিক পরিস্থিতির মধ্যে আছে। বিএনপির ভবিষ্যত নিয়ে অনেকেই সন্দিহান। অন্যদিকে পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টির শাসনামলে খুন, গুম, ধর্ষণ, চাঁদাবাজী ও টেন্ডারবাজী ছিলো না। জাতীয় পার্টির শাসনামলে বিচার বর্হিভূত হত্যাকান্ড ছিলোনা। তাই নতুন প্রজন্মের সামনে জাতীয় পার্টি একটি আদর্শ রাজনৈতিক শক্তি।

জাপা নেতা বলেন, জাতীয় পার্টিই পরিবর্তনের জন্য একমাত্র রাজনৈতিক শক্তি। দেশের মানুষ জাতীয় পার্টির দিকে উন্মুখ হয়ে তাকিয়ে আছে। জাতীয় পার্টি গণমানুষের সমর্থন নিয়ে ুধা, দুর্নীতি ও বেকারত্ব মুক্ত বাংলাদেশ উপহার দেবে। জাতীয় পার্টিকে আমরা একটা ব্র্যান্ডে পরিণত করে সামনে এগিয়ে নিতে চাই। ন্যায় বিচার ভিত্তিক রাষ্ট্র গঠনেই জাতীয় পার্টির রাজনীতি।

যোগদান অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন, জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, কো-চেয়ারম্যান মুজিবুল হক চুন্নু, যুগ্ম মহাসচিব ও জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সাধারণ সম্পাদক মো. বেলাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক এনাম জয়নাল আবেদীন, দফতর সম্পাদক সুলতান মাহমুদ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আল জুবায়ের, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক এম.এ. রাজ্জাক খান, যুগ্ম দফতর সম্পাদক মাহমুদ আলম, সমরেশ মন্ডল মানিক, যুগ্ম স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. মো. আব্দুল্লাহ আল ফাত্তাহ, জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির মনিরুজ্জামান টিটু, গোলাম মোস্তফা, হুমায়ুন খান, সৈয়দ মনিরুজ্জামানসহ অন্যরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *