বরগুনায় কলেজছাত্রীকে ৩ দিন আটকে রেখে ধর্ষণ

নিউজ দর্পণ, বরগুনা : বরগুনা সদর উপজেলায় এক কলেজছাত্রীকে অপহরণ করে একটি বাড়িতে চার দিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকির অভিযোগও উঠেছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে রোববার বরগুনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন। ট্রাইব্যুনালের বিচারক জেলা জজ মো. হাফিজুর রহমান মামলাটি গ্রহণ করে বরগুনা থানাকে এজাহার নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার আসামিরা হলেন- বরগুনা সদর উপজেলার ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের পশ্চিম গিলাতলী গ্রামের রাজিকুল ইসলাম রাজু এবং তার সহযোগী কবির মিয়া ও আউয়াল মিয়া।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, ওই ছাত্রী বরগুনা সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে পড়াশোনা করেন। তিনি ১৫ই সেপ্টেম্বর সকালে তার এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যান। ওইদিন বিকালে নিজ বাড়িতে ফেরার পথে রাজু ও তার ভগ্নিপতি কবির মিয়া ছাত্রীটিকে অপহরণ করে মোটরসাইকেলে তুলে আউয়াল মিয়ার বাড়িতে নিয়ে যান। সেখানে আটকে রেখে রাজু তাকে ধর্ষণ করেন।

কলেজছাত্রীর মা বলেন, খবর পেয়ে লোকজন নিয়ে ১৯শে সেপ্টেম্বর সকালে আমার মেয়েকে উদ্ধার করি। আমি মামলা করতে চাইলে রাজু আমার মেয়েকে বিয়ে করার আশ্বাস দেয়। কিন্তু পরবর্তীতে রাজু জানায়, সে আমার মেয়েকে বিয়ে করবে না। এবং আমার মেয়ের খারাপ দৃশ্যের ভিডিও করে রেখেছে। বেশি বাড়াবাড়ি করলে তা ইন্টারনেটে ছেড়ে দেবে। তিনি আরও বলেন, আমি ১০ই অক্টোবর বরগুনা থানায় গেলে ওসি মামলা না নিয়ে বরগুনা ট্রাইব্যুনালে মামলা করার পরামর্শ দেন।

বরগুনা থানার ওসি কেএম তারিকুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে বরগুনা থানায় কেউ মামলা করতে আসেননি। আদালত যে আদেশ দেবেন, তা পালন করব। মামলার পর থেকেই আসামিরা পালাতক রয়েছে। এ কারণে তাদের সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *