বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে আমার মাও স্বাধীনতার একই স্বপ্ন দেখতেন: প্রধানমন্ত্রী

নিউজ দর্পণ, ঢাকা : দেশের স্বাধীনতার জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু যেমন স্বপ্ন দেখতেন আমার মাও স্বাধীনতার সেই একই স্বপ্ন দেখতেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, এ দেশের মানুষ সুন্দর জীবন পাক, ভালোভাবে বাঁচুক এই প্রত্যাশা নিয়েই তিনি বাঙালির অধিকার আদায়ের সংগ্রামে সবসময় ছিলেন সজাগ এবং দূরদর্শী। তার পাশে সার্বক্ষণিক সাহস জুগিয়েছেন আমার মা।পাকিস্তানি সামরিক বাহিনীর সদস্যরা পারেনি কিন্তু বাংলাদেশের যে সেনাবাহিনী আমার বাবার হাতে গড়া, যারা আমার বাবার হাতে প্রমোশন পেয়েছেন। আমাদের বাড়িতে অবাধ যাতায়াত ছিল যাদের। তারাই আমার মা-বাবাসহ পরিবারের সবাইকে নৃশংসভাবে হত্যা করেছে।

বঙ্গমাতার ৯০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আজ শনিবার নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় আয়োজিত এক ভার্চুয়াল আলোচনায় তিনি এ কথা বলেন।

দেশের মানুষের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের আত্মত্যাগ বৃথা যাবে না বলে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শ সঠিকভাবে ধারণ করেছিলেন আমার মা। দেশের জন্য নিজের জীবনকে উৎসর্গ করে দিয়ে গিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক সহযোদ্ধা হিসেবে বঙ্গবন্ধুকে সার্বক্ষণিক অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন বঙ্গমাতা। মা পরিবারকে দেখে রেখেছেন। এতে আমার বাবা দেশের জন্য কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন।’

চাওয়া-পাওয়ার ঊর্ধ্বে উঠে বঙ্গমাতা নিজেকে বিলিয়ে দেওয়ার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন উল্লেখ করে দেশের নারীদের তাকে অনুসরণ করার আহ্বান জানান বঙ্গবন্ধু-কন্যা।

একাত্তরের ১৫ আগস্টের ঘটনা স্মরণ করে তিনি বলেন, যখন জাতির পিতাকে হত্যা করা হলো, তখন তিনি সেখানে যেতে চেয়েছিলেন। ঘাতকদের কাছে তিনি জীবন ভিক্ষা চাননি। কিন্তু সেখানেই তাকে হত্যা করা হয়।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশ এগিয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু করোনা সেটা বাধাগ্রস্ত করল। এতে কিছুই করার নাই, সারা বিশ্বেই এই সমস্যা। অবশ্যই আমরা এর উত্তরণ ঘটাব। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ব। আমার মায়ের আত্মত্যাগ বৃথা যাবে না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *