বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মান নিয়ে গাত্রদাহ রহস্যজনক: তথ্যমন্ত্রী

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: চলমান ভাস্কর্য ইস্যুতে অবস্থান পরিষ্কার করতে বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য যখন নির্মিত হচ্ছে বিভিন্ন জায়গায় তখন তাদের গাত্রদাহ হচ্ছে। এটি হচ্ছে রহস্যজনক।
আজ বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মণির ৮১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এই আহ্বান জানান।
বিএনপির উদ্দেশ্যে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আপনারা তো জিয়াউর রহমানের ভাস্কর্য সারা বাংলাদেশে বানিয়েছেন। আপনারা আপনাদের বক্তব্য স্পষ্ট করুন। এই অপশক্তির বিরুদ্ধে আপনারা বক্তব্য দিন, এটা করতে আপনাদের এত লজ্জা কেন?
এই বিষয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে প্রশ্ন করা হয়েছিল জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল ভাস্কর্য নিয়ে তার অবস্থান কী। তিনি নির্লজ্জের মতো বললেন, এটি আমার কাছে কোনও ইস্যু নয়। সারাদেশ যখন উত্তাল, আর এটা ওনার কাছে ইস্যু না। ওনার ইস্যু হচ্ছে তারেক রহমানের মতো যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে কিভাবে দেশে ফেরত আনা যায়, দুর্নীতির দায়ে সাজাপ্রাপ্ত বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি কিভাবে করা যায়, বেগম খালেদা জিয়ার হাঁটুর ব্যাথা, পায়ের ব্যাথা ওনার কাছে ইস্যু।
তিনি বলেন,‘আমি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবের কাছে প্রশ্ন রাখতে চাই, আপনি বক্তব্যের মাধ্যমে আপনাদের অবস্থান পরিষ্কার করুন। অন্যথায় অপশক্তির পেছনে ইন্ধনদাতা হিসেবে জনগণ আপনাদের চিহ্নিত করবে।
হাছান মাহমুদ বলেন, ‘দেশে ভাস্কর্য হাজার বছর ধরে আছে। এই দেশে ব্রিটিশ আমলে ভাস্কর্য নির্মিত হয়েছে, বাংলাদেশের স্বাধীনতার পরও আমাদের ইতিহাস ঐতিহ্যকে ধারণ করার স্বার্থে ভাস্কর্য নির্মিত হয়েছে। তখন কেউ কথা বলেনি, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য যখন নির্মিত হচ্ছে বিভিন্ন জায়গায় তখন তাদের গাত্রদাহ হচ্ছে। এটি হচ্ছে রহস্যজনক। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যবিরোধী কথা বলে আবার গ্রহণযোগ্যতা আদায়ের জন্য বঙ্গবন্ধুর পক্ষে দুই চার কথা বলার চেষ্টা করে। এগুলো হচ্ছে ছলচাতুরি। এটি হচ্ছে তাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের অপকৌশলের অংশ।
আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, বিএফইউজে মহাসচিব সাবান মাহমুদ, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা অরুণ সরকার রানা প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *