ফতুল্লায় ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে বাবা খুন

নিউজ দর্পণ, নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় সন্ত্রাসীদের হামলা থেকে ছেলেকে উদ্ধার করতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে মজিবুর খন্দকার নামে এক বৃদ্ধ খুন হয়েছেন। নিহত মজিবুর খন্দকার ফতুল্লার বক্তাবলী ইউনিয়নের চর বয়রাগাদী গ্রামের বাসিন্দা।

আজ বুধবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি মারা যান।

নিহতের ছেলে সবুজ খন্দকার বলেন, ১৬ ফেব্রুয়ারি সকালে মোটরসাইকেলে করে বাসায় ফেরার পথে চর বয়রাগাদী ব্রিজের সামনে একই এলাকার আবুল হোসেন, নাসির উদ্দিন, কবির হোসেন, জাকির হোসেন, আমানউল্লাহ, সৈয়দ রিফাত, মোকছেদুল, ফয়সাল, দেলোয়ার, মহসিন, মোহাম্মদ আলী ও আফজালসহ তাদের বিশাল সন্ত্রাসী বাহিনী আমার পথরোধ করে মারধর করতে থাকে।

এ সময় খবর পেয়ে আমার বাবা মজিবুর খন্দকার, মামাতো ভাই স্বপন ও মামি ছামিরুন নেছা আমাকে তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করতে এগিয়ে আসেন।

তখন সন্ত্রাসীরা তাদের এলোপাতাড়ি কোপায়। এতে আমার বাবা হাতে ও পেটে ছুরিকাহত হয়ে গুরুতর জখম হন। ওই সময় এলাকাবাসী ছুটে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী আমাদের সবাইকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করেন।

তিনি আরও জানান, চিকিৎসা নিয়ে তারা তিনজন কিছুটা সুস্থ হলেও বুধবার সকালে তার বাবা মজিবুর খন্দকার ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এ ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেছেন।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন জানান, আহত মজিবুর খন্দকার চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে মারা গেছেন। ময়নাতদন্তের পর তার লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় করা মামলার আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *