প্রধানমন্ত্রীর সময়ে ১২ বছরে যারা এত্রিম হলো তাদের কথা বলেননি: রিজভী

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজের এত্রিমের কথা বলেন, অথচ তাদের  ১২ বছরে শাসনামলে যারা এত্রিম হলো তাদের কথা বলেননি বলে অভিযোগ করেছেনবিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আজ রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের আব্দুস সালাম হলে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে করোণা প্রতিরোধে জনসচেতনতা মূলক গান ও ভিডিও ক্লিপ এর মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

১৫ আগস্ট নিয়ে গতকাল প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে রিজভী বলেন, আগস্ট মাসে শেখ মুজিবুর রহমান সহ তার পরিবারের সদস্যরা নিহত হয়েছে এটা অত্যন্ত দুঃখজনক আমরাও এটা মর্মান্তিক মনে করি। এইজন্য আপনি(প্রধানমন্ত্রী) এতিম হয়েছেন। আমরা অস্বীকার করছি না। কিন্তু ৭২ থেকে ৭৫ পর্যন্ত রক্ষী বাহিনী ছোড়া গুলিতে হাজার হাজার বিরোধীদলীয় নেতা নিহত হয়েছেন যারা অনেকেই বিয়ে করেছিলেন তাদের বাচ্চারা এতিম হয়েছেন তাদের সম্পর্কে তো গতকাল আপনি কিছু বলেননি। এটাও তো বলা উচিত ছিল আপনি না দেশের প্রধানমন্ত্রী।
প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে রিজভী আরও বলেন,’আপনাদের সরকারের কারণে সারাদেশে যারা এতিম হলো তাদের কথা তো বলা উচিত ছিল শুধু নিজের কথা বলেন আপনার শাসনামলে গত ১২ বছরে মিথ্যা ক্রসফায়ারে, গুমে যে সকল মানুষদেরকে হত্যা করা হয়েছে তাদের ছেলেমেয়েরা এতিম হয়েছে তাদের কথা তো বলে নি। আপনি দেশের প্রধানমন্ত্রী সেজেছেন অথচ এদের কথা বলেন না।

বিএনপির এই নেতা বলেন, গোটা দেশকে খোকলা করা হয়েছে মানে অন্ধকার গহ্বরে পরিণত করা হয়েছে। এখানে কিছু নেই সেটা কি জনগণের টাকা পকেট মেরে বিত্ত বৈভব হয়েছে কার? আপনার আপনার দলের নেতাকর্মীদের। আপনি এতিমদের ভবিষ্যতের কথা বলেন কানাডার বেগম পাড়া;আর মালয়েশিয়ার সেকেন্ড হোমে আপনার দলের নেতাকর্মীদের যত টাকা গিয়েছে সেই টাকা যদি যেতে না দিতেন তাহলে সে টাকা দিয়ে দিয়েই বড় বড় এতিম খানা তৈরি করতে পারতেন। তাহলেতো এতিমদের শিক্ষা স্বাস্থ্য খাদ্য সব ব্যবস্থা করা যেত।
রিজভী বলেন,দুঃসহ বিভীষিকাময় সর্বত্র বিরাজমান বিশেষ করে গত কুরবানী ঈদের পর থেকে করোনার প্রকোপ আরো বেড়েছে কিন্তু স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন করোনা কমে গেছে।প্রতিদিন ব্রিফিং করে কম করে বললেও মানুষ কিছুটা জানতে পারছে কিন্তু সরকার মনে করছেন তারা বিব্রত হচ্ছেন এজন্য ব্রিফিং বন্ধ করে দিয়েছে।
চোর-ডাকাত দুর্নীতিবাজ দিয়ে ভর্তি স্বাস্থ্য খাত এমন মন্তব্য করে রুহুল কবির রিজভী বলেন,এই খাত থেকে প্রতিদিনই দুর্নীতিবাজ বের হচ্ছে এবং আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা স্বাস্থ্যখাতের সাথে জড়িত হয়ে নকল মাক্স পিপি করোনা মোকাবেলার জন্য যত স্বাস্থ্য সরঞ্জাম সবকিছুর এক ধরনের জালিয়াতি চক্র তৈরি হয়েছে এই স্বাস্থ্য মন্ত্রী থাকাকালীন অবস্থায়।এই স্বাস্থ্যখাতে যত দুর্নীতি হয়েছে সেগুলোর টাকা দিয়েই তো এতিমদের জন্য কোন ব্যবস্থা করা যেত।
এতিমদের প্রাপ্য টাকা দিয়ে আপনি প্রধানমন্ত্রী আপনার দলের নেতাকর্মীদের ভবিষ্যৎ রচনার সুযোগ করে দিয়েছেন বলেও মন্তব্য করেন রিজভী।
আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ডা: মোঃ আব্দুল করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন বিএনপির সহ তথ্য বিষয়ক সম্পাদক  কাদের গণি চৌধুরী,নির্বাহী কমিটির সদস্য ওবায়দুর রহমান চন্দন,ব্যারিস্টার মীর হেলাল উদ্দিন, সালাউদ্দীন ভূইয়া শিশির,জাসাসের সহ-সভাপতি ইথুন বা্বু, সিনিয়র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জাকির হোসেন  রোকন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *