পেরুতে স্বাস্থ্যবিধি ভেঙে নাইটক্লাবে ভিড়, পুলিশের অভিযানে পদদলিত হয়ে নিহত ১৩

নিউজ দর্পণ ডেক্স: করোনা মহামারীর স্বাস্থ্যবিধি ভেঙে নাইটক্লাবে ভিড় করেছিলেন শতাধিক মানুষ। আর আচমকা সেখানে অভিযান চালায় পুলিশ। দিগবিদিক ছুটতে গিয়ে অন্তত ১৩ জন প্রাণ হারান। আহত হন আরো অন্তত তিন জন।

ঘটনাটি ঘটেছে লাতিন আমেরিকার দেশ পেরুর রাজধানী লিমায়।

পেরুর পুলিশ প্রধান ওরল্যান্দো ভেলাসকো মুহিকা জানান, রাজধানীর লস অলিভস জেলায় টমাস রেস্টোবার নামের নাইটক্লাবটিতে শনিবার শতাধিক মানুষ পার্টি করতে জড়ো হয়েছিলেন। সন্ধ্যা নাগাদ এই পার্টি বন্ধ করতে পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। অভিযানের সময়ই এই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ বিস্তার রোধে পেরুতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এখন বাধ্যতামূলক। জনসমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। পাশপাশি রাত ১০টা পর সারা দেশে কারফিউ জারি করা হয়েছে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বিস্তার রোধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া আমেরিকা মহাদেশের মধ্যে প্রথম দিকের দেশ পেরু। কিন্তু তারপরও লাতিন আরেমিকার মধ্যে এ দেশে সংক্রমণ ভয়াবহ পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তথ্য অনুযায়ী, পেরুতে এখন পর্যন্ত ৫ লাখ ৭৬ হাজার করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে, আর মারা গেছে ২৭ হাজারের বেশি।

শনিবারের ঘটনার বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নাইটক্লাব থেকে লোকজনকে সরাতে পুলিশ কোনো অস্ত্র, কাঁদানে গ্যাস বা কোনো ধরনের বলপ্রয়োগ করেনি। পুলিশ প্রবেশর সঙ্গে সঙ্গে দ্বিতীয় তলার লোকজন যখন পালিয়ে যেতে হুড়োহুড়ি শুরু করে তখন সিঁড়িতে অনেকেই পদদলিত হন। সেখানে হতাহতের ঘটনা ঘটে। এই মৃত্যুতে গভীরভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

পুলিশ জানিয়েছে, এই নাইটক্লাবের মালিককে খোঁজা হচ্ছে। এ ঘটনায় এরই মধ্যে ২৩ জনকে আটক করা হয়েছে।

সূত্র: সিএনএন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *