পূর্ববিরোধে কলেজছাত্রের কব্জি কেটে নিল সন্ত্রাসীরা

নিউজ দর্পণ,পিরোজপুর: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় শুভ শীল (২০) নামে এক কলেজছাত্রের ডান হাতের কব্জি কেটে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। পূর্ববিরোধ ও মোবাইল চুরিকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার (১৯ আগস্ট) রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।কোরবান, তানভির মল্লিক, নাইম ও সাদির নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তার ডান হাতের কব্জি কেটে নিয়ে যায।

সঙ্কটজনক অবস্থায় ওই কলেজছাত্রকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়। পরে গুরুতর অবস্থায় তাকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (শেবাচিম) পাঠানো হয়েছে।

আহত শুভ শীল পৌর শহরের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ মিঠাখালী গ্রামের শ্যামল চন্দ্র শীল ওরফে কালাচাঁদের ছেলে। তিনি মঠবাড়িয়া সরকারি কলেজ থেকে এবার এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত সাড়ে ৮টার দিকে শুভ হাসপাতালের ব্রিজের ওপারে দোকানে বসে গল্প করছিল। এ সময় পূর্ববিরোধের জেরে স্থানীয় কোরবান, তানভির মল্লিক, নাইম ও সাদির নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তার ডান হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন করে উল্লাস করে। ঘটনার পর খবর পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদ শুভকে দেখতে হাসপাতালে ছুটে যান এবং হামলায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানান।

এদিকে এ হামলার প্রতিবাদে রাতেই বিক্ষুব্ধ যুবকরা মঠবাড়িয়া পৌর শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেন। তারা পৌর মেয়রের বাসভবনে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে তার ব্যবহৃত প্রাইভেটকার ভাঙচুরের চেষ্টা করেন।

মঠবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র রফিউদ্দিন আহম্মেদ ফেরদৌস বলেন, একটি পাড়ার ছাত্রলীগ কর্মীর ওপর হামলার ঘটনায় আমার বাসায় মিছিল নিয়ে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করা হয়েছে। একটি মহল শান্ত মঠবাড়িয়াকে অশান্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

মঠবাড়িয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আ জ ম মাসুদ্দুজ্জামান মিলু জানান, একটি মোবাইল চুরিকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *