পঞ্চগড়ে স্কুলছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে আইনজীবী আটক

নিউজ দর্পণ, পঞ্চগড়: পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে হাবিবুর রহমান (২৮) নামে এক আইনজীবীকে আটক করেছে পুলিশ।

হাবিব উপজেলার ধামোর ইউনিয়নের দারখোর গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে।

শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রাতে ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে আটোয়ারী থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

জানা যায়, ভিকটিমের পরিবার উপজেলার মোলানী গ্রামে থাকেন। আর ভিকটিমের বাবা জীবিকার তাগিদে তেঁতুলিয়া উপজেলায় এক স্বর্ণের দোকানে কাজ করেন। গত ৫ থেকে ৬ মাস আগে হাবিবের কাছ থেকে টাকা ধার নিয়েছিলেন ওই কিশোরীর বাবা। সেই সুবাধে ভিকটিমের পরিবারের সঙ্গ হাবিবের পরিচয়, সম্পর্ক। পূর্ব পরিচয়ের সুবাদে হাবিব ভিকটিমদের বাড়িতে প্রায়ই আসা-যাওয়া করতেন।

বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) ভিকটিমসহ তার ভাই দাড়িমনি গ্রামে আত্বীয়ের বাড়িতে যান। ওই দিন সকালে হাবিব ভিকটিমদের বাড়িতে গিয়ে তাকে দেখতে না পেয়ে চলে আসেন। পরদিন শুক্রবার দুপুরে ওই স্কুলছাত্রীর বাবা তার জন্য বাজারে অপেক্ষা করছে এমন কথা বলে কৌশলে তাকে উপজেলার মির্জা গোলাম হাফিজ ডিগ্রি কলেজ মোড় এলাকায় সুশীলের বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় ভিকটিমের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে হাবিবকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়।

আটোয়ারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইজার উদ্দীন  জানান, এ ঘটনায় হাবিবকে প্রধান আসামি করে তিনজনের নামে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার অপর আসামিরা হলেন- হাবিবের সহযোগী সুশীল চন্দ্র দাস (২৮) ও সুশীলের স্ত্রী শুকুনী দাস (২২)। তাদের আটকের চেষ্টা চলছে।

পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) সুদর্শন কুমার রায় জানান, আটক হাবিব আসলে আইনজীবী কী না তদন্তের আগে বলা যাচ্ছে না। তবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *