নোয়াখালীতে গৃহবধূকে নির্যাতন : পুলিশ এত দিন কী করল, হাইকোর্টের প্রশ্ন

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ভিডিও ফেসবুক থেকে সরানোর জন্য হাইকোর্টে আবেদন করা হয়েছে।
গৃহবধূকে নির্যাতনের ঘটনায় আজ সোমবার বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের হাইকোর্ট বেঞ্চে পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন তুলে ধরে বিষয়টি আদালতের নজরে আনেন অ্যাডভোকেট আবদুল্লাহ আল মাহমুদ।

শুনানিকালে আদালত জানতে চান, ‘ফেসবুকে আসার কারণে আমরা এ ঘটনা জানতে পেরেছি। এত দিন পুলিশ কী করল? ফেসবুকে আসার পর এখন পুলিশ প্রশাসনের টনক নড়েছে। ফেসবুকে না এলে এ ঘটনা অজানাই থেকে যেত। এ সময় আদালত বলেন, নির্যাতনের ঘটনা ফেসবুক থেকে সরিয়ে নিতে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, তা দুপুরের পর আমাদের জানাবেন।’

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিন শুনানিতে বলেন, ‘মাই লর্ড, গতকাল রাতে আমি ফেসবুকে এ জঘন্য ঘটনার ভিডিও দেখেছি। এটি অত্যন্ত জঘন্য একটি ঘটনা। এরূপ ঘটনা আগে কখনো দেখিনি। এদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন।’

এ সময় আদালতে আবেদনের পে আরো শুনানি করেন সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিন ও আইনজীবী জেড আই খান পান্না। আজ সোমবার দুপুরে আবারও শুনানি শেষে এ বিষয়ে আদেশ দেবেন হাইকোর্ট।

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়া হয় বলে ভুক্তভোগী নারী (৩৭) মামলার এজাহারে উল্লেখ করেছেন।

গত সেপ্টেম্বর মাসের শুরুর দিকের ঘটনায় ওই নারী রোববার বেগমগঞ্জ থানায় দুটি মামলা করেন। একটি মামলা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে, অন্যটি পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে। দুই মামলাতেই নয়জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারের ওই নারী অভিযোগ করেছেন,তার স্বামীকে বেঁধে রেখে আসামিরা তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। তারা এ ঘটনার ভিডিওচিত্র ধারণা করেন। গত এক মাস ধরে তারা এই ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার কথা বলে তাকে অনৈতিক প্রস্তাব দিচ্ছিলেন। তিনি এই অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তারা ফেসবুকে ভিডিওটি ছেড়ে দেন।

এদিকে এ ঘটনার প্রধান আসামি বাদলসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাদলকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এছাড়া এই ঘটনায় দেলোয়ার বাহিনীর প্রধান দেলোয়ারকে অস্ত্রসহ নারায়ণগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *