নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগে স্কুল ভবন ভাঙচুর গ্রামবাসীর

নিউজ দর্পণ, যশোর: যশোরের বেনাপোলের বাহাদুরপুর ইউনিয়নের ধান্যখোলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নতুন ভবন নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগে ভবনের কিছু অংশ ভেঙে দিয়েছে গ্রামবাসী।
জেলা শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর এর তত্বাবাধনে নবনির্মিত চারতলা ভবন নির্মাণে অনিয়ম ও নিম্নমানের সরঞ্জাম ব্যাহারের অভিযোগ তুলে নির্মাণ কাজ বন্ধসহ ভবনটির লিনটন, ব্যালকনি, ড্রপছাদ ও পিলারের কিছু অংশ ভাঙচুর করেছে স্থানীয় গ্রামবাসী।
গ্রামবাসীরা জানায়, বিগত এক বছর পূর্বে ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু হলে প্রথম থেকেই বেজমেন্ট, কলম ঢালাই কাজে অনিয়ম পরিলক্ষিত হলে প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক ও এলাকাবাসী বাধা দেয় নির্মাণ কাজে। সে সময় স্কুল কমিটি ও গ্রামবাসাীর বাধার মুখে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান আর অনিয়ম করবে না বলে আস্বস্ত করে পুনরায় ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করেন।গত বৃহষ্পতিবার সকালে আবারো নির্মাণ কাজে অনিয়ম ধরা পড়লে বিক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী ছাত্র-ছাত্রীদের ভবিষ্যৎ নিরাপত্তা কথা চিন্তা করে ভবনের অনেকাংশ ভেঙে গুড়িয়ে দেয়।
অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বিদ্যালয়টির সহকারী লাইব্রেরীয়ান মিনহাজুর ইসলাম মিন্টু জানান, ভবন নির্মাণের জন্য নকশা অনুয়ায়ী নির্ধারীত রড ও অন্যান্য সরঞ্জাম ব্যবহার না হওয়ায় আমি নিজেই কাজ বন্ধ রাখা সহ ছয়টি পিলার ভেঙ্গে ফেলি। এসময় উত্তেজিত গ্রামবাসীকে থামাতে বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশের একটি প্রতিনিধি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
প্রকল্পটির দায়িত্বপ্রাপ্ত ইঞ্জিনিয়ার জহির রায়হান মুঠোফোনে জানান, গ্রামবাসী কর্তৃক অনিয়ম করে নির্মিত ভবনের কয়েকটি অংশ ভেঙ্গে ফেলার কথা তিনি শুনেছেন। নিয়োজিত ঠিকাদার কামাল আহমেদকে ঘটনাস্থলে যেতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
অন্য দিকে ভবন র্নিমাণ কাজের অনিয়ম-দুর্নীতির ঘটনাটি ধামা চাপা দিতে ঠিকাদার স্থানীয় একটি মহলের সাহায্যে তদবির মিশনে নামায় এলাকাবাসীর মধ্যে জনরোস সৃষ্টি হয়েছে। গ্রামবাশি সংশ্লিষ্ট মহলের উর্ধ্বনদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে ছাত্র-ছাত্রীদের ভবিষ্যৎ জীবন হুমকির মুখে ফেলা সরকারী কর্মকর্তাসহ ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের শাস্তি দাবি করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *