তৃতীয় ধাপে ভাসানচরে যাচ্ছেন ৩ হাজার রোহিঙ্গা

নিউজ দর্পণ, কক্সবাজার: তৃতীয় দফায় স্বেচ্ছায় আরও ৮৫০ রোহিঙ্গা উখিয়া কলেজ মাঠ থেকে চট্টগ্রাম হয়ে নোয়াখালীর হাতিয়ার ভাসানচরের যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে উখিয়া কলেজ মাঠ থেকে রোহিঙ্গাদের ১৬টি বাসে করে চট্টগ্রাম বোট ক্লাবের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। আরো সাড়ে ৩ হাজার রোহিঙ্গা শরনার্থীকে ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।
কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফ থেকে ভাসানচরে এটি হবে তৃতীয় দফায় এবং বৃহৎ সংখ্যায় রোহিঙ্গা শরনার্থী স্থানান্তর। সংশ্লিষ্ট সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
ভাসানচরে নেয়ার উদ্দেশ্যে সি-লাইন সার্ভিসের ২০টি মিনিবাস ও মাল বহনকারী ১০টি ট্রাকের মাধ্যমে রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প থেকে ভাসানচরে পাঠানো হয়।
রোহিঙ্গা শরনার্থীদের এই দলটি ভাসানচরের উদ্দ্যেশে বাসে করে রওনা দিয়েছে চট্টগ্রাম অভিমুখে। সোখান থেকে সমুদ্র পথে জাহাজে ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হবে।
আগামীকাল শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) কুতুপালং-১ ইস্ট, ২ ইস্ট, এবং ২ ওয়েস্ট ক্যাম্প থেকে আরও প্রায় দেড় হাজার রোহিঙ্গা শরনার্থীর পৃথক একটি দল ভাসানচরে রওনা দেবে। তাদেরকে আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে ক্যাম্প থেকে ট্রানজিট পয়েন্ট উখিয়া ডিগ্রি কলেজ মাঠে আনা হবে।
ক্যাম্পের এক মাঝি জানিয়েছেন, রোহিঙ্গারা ভাসানচরে যেতে দিন দিন আগ্রহী হয়ে উঠছে। ইতিমধ্যে স্বেচ্ছায় ক্যাম্প ইনচার্জের নিকট ভাসানচরে যেতে আগ্রহীদের তালিকা যারা জমা দিয়েছিল, তারা আজ ও আগামীকাল ভাসানচরে যাচ্ছে। তৃতীয় দফায় দুইদিনে রোহিঙ্গাদের বিশাল বহর স্বেচ্ছায় ভাসানচরে যাওয়ার সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও প্রশাসনিক কর্মকর্তারা তাদের নিরাপত্তা ও প্রয়োজনীয় সহায়তা দিচ্ছে।
উখিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী জানিয়েছেন, উখিয়া-টেকনাফে আশ্রিত ৩৩টি রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে কমপক্ষে এক লক্ষ রোহিঙ্গাকে নোয়াখালীর হাতিয়ার ভাসানচরে স্থানান্তর করার টার্গেট রয়েছে। আগামী ফেব্রুয়ারীর দ্বিতীয় সপ্তাহে ভাসানচরে যেতে আগ্রহী রোহিঙ্গা শরনার্থীদের আরো একটি দল উখিয়া-টেকনাফ এর শরনার্থী ক্যাম্প থেকে চতুর্থ দফায় ভাসানচরে স্থানান্তরের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।
প্রসঙ্গত, রোহিঙ্গা শরনার্থীদের প্রয়োজনীয় নিরাপত্তার প্রয়োজনে নোয়াখালীর ভাসানচরকে দেশের ৬৫০ তম পূর্ণাঙ্গ একটি থানা হিসাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ইতিমধ্যে উদ্বোধন করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *