খিলেেত যুবকের মরদেহ উদ্ধার, পরিবারের অভিযোগ হত্যা

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: রাজধানীর খিলতে থানাধীন মাস্তুল এলাকায় জনি মিয়া (২৫) নামের এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরিবারের অভিযোগ, তাকে হত্যা করা হয়েছে।

সোমবার রাতে মাস্তুল এলাকার দুলাল এন্টারপ্রাইজের বালুর গদির সামনে থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

খিলতে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আব্দুর রহিম জানান, রাতে বেকু দিয়ে ট্রাকে বালু তোলার সময় ডান চোখ ও কপালে আঘাত পেয়ে ঘটনাস্থলেই জনির মৃত্যু হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

জনির নানা দীন ইসলাম জানান, ১৫ দিন ধরে ওই বালুর গদিতে ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন জনি। তিনি প্রতি ট্রাকে টোকেন দিতেন।

তিনি আরও জানান, প্রতিদিনের মতো গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় জনি বাসা থেকে কাজে বেরিয়ে যান। রাত ৩টার দিকে একজন আমাদের বাসায় এসে জানান, তিনি অ্যাক্সিডেন্ট করেছেন। পরে সেখানে গিয়ে তাকে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।

দীন ইসলামের অভিযোগ, পূর্বশত্রুতার জেরে বালু ব্যবসায়ী দুলাল, রাকিব, আব্বাস, আরিফ বেকু মেশিন দিয়ে তাকে ধাক্কা দিয়ে হত্যা করেন।

খিলতে থানার মাস্তুলের বেলতলা এলাকায় পরিবার নিয়ে থাকতেন জনি। তার বাবার নাম জাইদুল ইসলাম। এক বছর আগে বিয়ে করেছিলেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *