ইসি‘র প্রস্তাবিত আইন গণতন্ত্রের জন্য হুমকি: মির্জা ফখরুল

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: নির্বাচন কমিশনারের প্রস্তাবিত আইন গণতন্ত্রের জন্য হুমকি বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন যে আইন সংশোধন করতে যাচ্ছে বা প্রস্তাব করেছে এই আইনগুলো করলে তা গণতন্ত্রের জন্য মারাত্মক হুমকি হয়ে দাঁড়াবে। যেটা আমরা বলি, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন সকল দলের অংশগ্রহনে মাধ্যমে সেটা বেশ কঠিন হয়ে পড়বে। আমরা এই বিষয়ে সোমবার বিকাল ৪টায় আমাদের সুপারিশগুলো আপনাদের মাধ্যমে জাতির সামনে উপস্থাপন করবো।

আজ রোববার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান উপস্থিত ছিলেন।
মির্জা ফখরুল জানান, নির্বাচন কমিশন কর্তৃক প্রস্তাবিত স্থানীয় সরকার নির্বাচন আইন-২০২০ বিষয়ে ইতিপূর্বে নজরুল ইসলাম খানের নেতৃত্বে গঠিত কমিটি বিস্তারিত পর্যালোচনা করে প্রতিবেদন তৈরি করেছে যা গতকাল স্থায়ী কমিটির বৈঠকে গৃহিত হয়। আজকে বিকাল তিনটায় বিএনপির একটি প্রতিনিধি দলের এই সংক্রান্ত সুপারিশ ও চিঠি নির্বাচন কমিশনের কাছে গিয়ে দিয়ে আসবে।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, মহান স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্ত উদযাপনে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের নেতৃত্বে ১১৫ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কেন্দ্রীয় উদযাপন কমিটি অনুমোদন দিয়েছে বিএনপি।
তিনি বলেন, গতকাল দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সভাপতিত্বে জাতীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এই পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন করা হয়। স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী পালনে যথাযথ কর্মসূচি প্রনয়ন ও বাস্তবায়নের জন্য কমিটির আহবায়ক ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন জন্য বলা হয়েছে।

গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব বলেন, জাতীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে আগামী ৭ নভেম্বর জাতীয় সংহতি ও বিপ্লব দিবস যথাযথ মর্যাদায় পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহীত হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা-১৮ উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী এসএম জাহাঙ্গীরের প্রচারাভিযানে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হামলা ও নির্বাচন কমিশন-পুলিশ প্রশাসনের নিরবতায় নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি আহবান জানান মির্জা ফখরুল।

তিনি আরো বলেন, পবিত্র ধর্ম ইসলাম এবং মহানবী হযরত মোহাম্মাদ (স:)’এর ব্যাঙ্গঁ চিত্র (কার্টুন) প্রকাশ ও তার পক্ষে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের অবস্থান গ্রহণকে কেন্দ্র করে সারা বিশে^র ২০০ কোটিরও বেশী মুসলমানসহ সকল ধর্ম-বর্ণের কোটি কোটি যুক্তিবাদী ধর্মপ্রাণ মানুষ এবং বিভিন্ন রাষ্ট্র যে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে চলেছেÑ বিএনপি তার সাথে একাত্মতা ঘোষণা করছে।
সকল ধর্মের মানুষের ধর্মবিশ^াসের প্রতি শ্রদ্ধাশীল বিএনপি মনে করে যে, মত প্রকাশের স্বাধীনতার নামে কোন র্ধমনেতার অবমাননা কোন ভাবেই সমর্থনযোগ্য হতে পারেনাা। রাসূল পাক (স:)’এর কার্টুন প্রকাশকে বিএনপি তাই একটি গর্হিত অপরাধ বলে গণ্য করে এবং তীব্র নিন্দা জানায়।

একই ভাবে ধর্মীয় সহিষ্ণুতায় বিশ^াসী বিএনপি মনে করে যে, মহানবী (স:) এর কার্টুন প্রকাশ ও তা সমর্থন করা যেমন ধর্মবিদ্বেষকে উস্কিয়ে দেয়ার মত অপরাধÑ তেমনি প্রতিবাদের ভাষা হিসাবে মানুষ হত্যাও গ্রহণযোগ্য নয়। বিশে^ শান্তি প্রতিষ্ঠার মহান ব্রত নিয়ে যিনি মানবতার ধর্ম ইসলাম প্রচার করেছেন সেই মহানবী (স:) এর দীক্ষাই হোক আমাদের পথ নির্দেশক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *