ইসলামী মহাসম্মেলনে বক্তব্য রাখায়: মাওলানা মামুনুলের নামে মামলা

নিউজ দর্পণ, কুমিল্লা: পুলিশকে না জানিয়ে কুমিল্লার চান্দিনায় ইসলামী মহাসম্মেলনে বক্তব্য রাখার অভিযোগে খেলাফতে মজলিশের মহাসচিব ও হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। মামলায় মামুনুল হকসহ ৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। গত ১৭ ডিসেম্বর চান্দিনা থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়। শনিবার এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।
তবে ঢাকায় শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য প্রথম জানান বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমান চৌধুরী। একটি জাতীয় দৈনিকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ওই মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে গিয়েছিলেন জানিয়ে শনিবারের সংবাদ সম্মেলনে মিছবাহুর রহমান চৌধুরী বলেন, রাত ১১টায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভাষণ শেষ করে তিনি ঢাকার পথে রওনা হন। ঢাকায় পৌঁছার পর তিনি জানতে পারেন সেখানে শেষ সময়ে মাওলানা মামুনুল হকও গিয়েছিলেন। মূল অনুষ্ঠান শেষে অনুসারীদের অনুরোধে তিনিও সেখানে বক্তৃতা রাখেন। তথ্য গোপন করে অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে বক্তব্য রাখায় মাওলানা মামুনুলের সঙ্গে আয়োজকদের নামে মামলা হয়েছে।
বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজ নিলে চান্দিনা থানার ওসি সামছুদ্দিন মোহাম্মদ ইলিয়াস জানান, করোনা মহামারির কারণে গণজমায়েত নিষিদ্ধ করেছে সরকার। তার মধ্যে প্রশাসনের কাছে তথ্য পোপন করে মাহফিলের আয়োজন করেছে অভিযুক্তরা। ওই মাহফিলের পোস্টার, ব্যানারে খেলাফত মজলিশের মহাসচিব হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হকের নাম ছিল না। কিন্তু, আয়োজকদের যোগসাজসে ওই মাহফিলে মামুনুল হক এসে রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচার, উস্কানিমূলক এবং মানুষের মধ্যে প্রপাগন্ডা ছড়ানোর মতো বক্তব্য প্রদান করেছেন। যার কারণে ১৭ ডিসেম্বর মাহফিলের আয়োজক মোশারফ হোসেন মাহমুদকে ১ নম্বর এবং হেফাজত নেতা মামুনুল হককে ২ নম্বর আসামি করে ৬ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করা হয়েছে। ওই মামলায় আসামি করা হয়েছে মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবীকেও।
তিনি বলেন, গত ১৫ ডিসেম্বর কুমিল্লার চান্দিনা থানাধীন জোয়াগ পশ্চিমপাড়া এলাকায় দুই দিনব্যাপী ইসলামী মহাসম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে আয়োজকরা মাওলানা মামুনুল হক আসার বিষয়টি পরিকল্পিতভাবে সম্পূর্ণ গোপন রাখেন। কিন্তু, ওই মাহফিলে মামুনুল হককে ডেকে এনে বক্তব্য দেওয়ানোর মাধ্যমে সেখানে তারা দাঙ্গার পরিবেশ তৈরি করেছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *