ইন্টারপোলের লাল তালিকায় প্রথম মানবপাচারকারী বাংলাদেশি

নিউজ দর্পণ ডেস্ক: ইন্টারন্যাশনাল ক্রিমিনাল পুলিশ অর্গানাইজেশনের (ইন্টারপোল) লাল তালিকায় ৭০ জনেরও বেশি বাংলাদেশি অপরাধীর নাম রয়েছে। তবে এবারই প্রথম সেই রেড নোটিশে মানবপাচারকারী কোনও বাংলাদেশির নাম স্থান পেয়েছে।
জার্মানভিত্তিক আন্তর্জাতিক সম্প্রচার কেন্দ্র ডয়েচে ভেলে জানিয়েছে, মিন্টু মিয়া নামে ওই মানবপাচারকারীর বিরুদ্ধে বিদেশে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা করা এবং চাকরি প্রত্যাশীদের অবৈধভাবে আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায়, এমনকি হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে।
চলতি সপ্তাহে তার নাম তালিকায় যোগ করে পুলিশ ও অপরাধ সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক সংস্থা ইন্টারপোল। ওই তালিকায় বর্তমানে বিশ্বের ৭ হাজার ৩৬৮ জন অপরাধীর নাম রয়েছে।
লাল তালিকায় মিন্টু মিয়া সম্পর্কে বলা হয়েছে, তার বয়স ৪১ বছর। তিনি কিশোরগঞ্জের বাসিন্দা।
এদিকে মিন্টু মিয়াসহ ৬ জন মানবপাচারকারীর নাম ইন্টারপোলের লাল তালিকায় অন্তর্ভুক্তির জন্য আবেদন করা হয়েছে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের স্পেশাল সুপারিন্টেন্ডেন্ট অব পুলিশ সৈয়দা জান্নাত আরা।
তিনি বলেছেন, ‘এই পাচারকারীরা বিদেশে চাকরি দেয়ার নাম করে বাংলাদেশিদের কাছ থেকে টাকা নেয়। এরপর লিবিয়ায় তাদের আটকে রেখে আরও অর্থের তাদের ওপর নির্যাতন চালায়। ইন্টারপোলে বিস্তারিত তথ্য দেয়ার কারণে তাদের চলাফেলা বাধাগ্রস্ত হবে। তারা এখন যে দেশেই যাক না কেন সেখানেই তাদের আটকের চেষ্টা চলবে।’
লিবিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম কাউন্সিলর আশরাফুল ইসলাম ইন্টারপোলে পাচারকারীদের নাম দেয়ার প্রশংসা করে বলেছেন, ‘আশা করছি, এই উদ্যোগ মূল অপরাধীদের ধরতে সহায়তা করবে এবং পাচার হয়ে বাংলাদেশিদের এখানে আসা বন্ধ হবে। এই উদ্যোগ সফল হচ্ছে কিনা, তা জানতে আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।’
এর আগে গেল মে মাসের লিবিয়ায় ২৪ জন বাংলাদেশিকে অপহরণ ও হত্যার ঘটনার পর মানবপাচারকারীদের বিরুদ্ধে সারা দেশে অভিযান শুরু করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।
এরমধ্যে গেল জুন মাসে অন্তত ৫০ জন পাচারকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। যেটি দেশে মানবপাচারকারীদের বিরুদ্ধে ‘সবচেয়ে বড় অভিযান’ বলে দাবি পুলিশের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *