ইকুয়েডরকে হারিয়ে আর্জেন্টিনার শুভ সূচনা

নিউজ দর্পণ ডেস্ক: ২০২২ সালের কাতার বিশ্বকাপে অংশগ্রহণের লড়াইটা দুর্দান্তভাবে শুরু করল আর্জেন্টিনা ফুটবল দল। সমীহ জাগানিয়া দল ইকুয়েডরকে ১-০ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে শুভসূচনা করল লিওনেল মেসির দল।

দলের জয়ে একমাত্র গোলটি করেছেন অধিনায়ক মেসিই। ম্যাচের ১৩ মিনিটের মাথায় পেনাল্টি থেকে গোল করে আর্জেন্টিনাকে জয় এনে দিয়েছেন দলের সবচেয়ে বড় তারকা। আন্তর্জাতিক ফুটবলে এটি তার ৭১তম গোল।

আর্জেন্টিনার রাজধানী শহর বুয়েন্স আয়ার্সের স্টেডিয়াম লা বোম্বোনেরায় ইকুয়েডরকে স্বাগত জানিয়েছিল আর্জেন্টিনা। দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে দুই দলের খেলায় সৌন্দর্য্যের চেয়ে যেনো ফাউলের ছড়াছড়িই ছিল বেশি। যা নষ্ট করেছে খেলার স্বাভাবিক ছন্দ।

পুরো ম্যাচে অন্তত ৩৫ বার বেজেছে রেফারির ফাউলের বাঁশি। শরীরী ফুটবলের জন্য বরাবরই নামডাক রয়েছে ইকুয়েডরের। এবার তাদের সঙ্গে সমান পাল্লা দেয়ার চেষ্টা করেছে আর্জেন্টিনাও। যার পরিণত ফাউলের ছড়াছড়ি।

ম্যাচের ৬০ শতাংশ সময় বল নিজেদের দখলে রেখেও খুব বেশি জোরালো আক্রমণ করতে পারেননি মেসি, দিবালারা। নির্ধারিত সময়ে আটবার আক্রমণে উঠলেও লক্ষ্যপানে মাত্র ২টি শট নিতে পেরেছে আর্জেন্টিনা। অন্যদিকে ইকুয়েডর একটি শটও করতে পারেনি লক্ষ্য বরাবর।

ম্যাচের সপ্তম মিনিটের মাথায় কর্নার থেকে আশা জাগিয়েছিলেন মেসি, তবে ফাউলের কারণে সেখান থেকে ভালো কিছু পায়নি আর্জেন্টিনা। এক মিনিট পর আক্রমণে ওঠার আভাস দিয়েছিল ইকুয়েডর, কিন্তু পূর্ণতা পায়নি সেটি।

উল্টো ১১ মিনিটের সময় নিজেদের ডি-বক্সের মধ্যে আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার লুকাস ওকাম্পোসকে ফাউল করে বসেন ইকুয়েডরের ডিফেন্ডার পার্ভিস এস্তুপিনান। সঙ্গে সঙ্গে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। যা হয়ে থাকে ম্যাচের ফল নির্ধারক।

গোলের সহজ সুযোগ কাজে লাগাতে ভুল করেননি আর্জেন্টাইন অধিনায়ক মেসি। মাত্র ১২ গজ দূরের পেনাল্টি স্পট থেকে ডানদিকে জোরালো শট নেন তিনি। সঠিক দিকেই ঝাপিয়েছিলেন ইকুয়েডর গোলরক্ষক অ্যালেক্সান্ডার ডমিঙ্গেজ। তবে মেসির শটের গতির কাছে পরাস্ত হন তিনি।

এই এক গোলের লিড ধরে রাখতে খুব একটা পরীক্ষা দিতে হয়নি আর্জেন্টিনাকে। বিগত দিনগুলোর চেয়ে রক্ষণভাগে দৃঢ়তা ছিল চোখে পড়ার মতো। তবে মাঝমাঠ ও আক্রমণভাগে বারবার খেই হারিয়েছে আলবিসেলেস্তেরা। অবশ্য ইকুয়েডরের শরীরী জোরে খেলা ফুটবলের কারণে মানিয়ে নিতে বেশ সমস্যাই হচ্ছিল মেসিদের।

ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে ভালো এক সুযোগ পেয়েছিলেন ওকাম্পোস। মেসির বাড়ানো বল ধরে দূরের পোস্ট দিয়ে গোলের চেষ্টা করেছিলেন তিনি। এবার বাধা হয়ে দাঁড়ান ইকুয়েডর গোলরক্ষক। কোনোমতে হাত ছুঁইয়ে বলটি পাঠিয়ে দেন কর্নারে। আরও একবার হতাশায় নিমজ্জিত হয় আর্জেন্টিনা।

বাকি সময়ে আর গোল না হওয়ায় মেসির এক গোলেই স্বস্তির জয় পায় আর্জেন্টিনা। লাতিন আমেরিকান অঞ্চলের বাছাইয়ে প্রথম জয়ে টেবিলের দুই নম্বরে অবস্থান করছে আর্জেন্টিনা। এখনও মাঠে নামেনি চারটি দল। যাদের প্রথম ম্যাচ শনিবার ভোরে।

দিনের অন্য দুই ম্যাচে ২-২ গোলে ড্র করেছে প্যারাগুয়ে ও পেরু এবং চিলিকে ২-১ গোলে হারিয়েছে উরুগুয়ে। উরুগুয়ের জয়ে গোল দুইটি করেছেন লুইস সুয়ারেজ ও ম্যাক্সিমিলানো গোমেজ।

আগামীকাল (শনিবার) বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৬টায় বিশ্বকাপ বাছাইয়ে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলবে আরেক শক্তিশালী দল ব্রাজিল, প্রতিপক্ষ বলিভিয়া। তাদের এক ঘণ্টা আগে মাঠে নামবে কলম্বিয়া ও ভেনেজুয়েলা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *