আরমানের ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণের আদেশ চেম্বারে স্থগিত

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: আদালতে আজ রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাস গুপ্ত ও সমরেন্দ্রনাথ বিশ্বাস। অন্যদিকে, আরমানের পক্ষে ছিলেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।
এর আগে গত ৩১ ডিসেম্বর এ বিষয়ে জারি করা রুল যথাযথ ঘোষণা করে আরমানকে ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণসহ অবিলম্বে মুক্তির নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। ৩০ দিনের মধ্যে ক্ষতিপূরণ হিসেবে তাকে ২০ লাখ টাকা দিতে পুলিশের আইজিপিকে নির্দেশ দেন আদালত।
এছাড়া পল্লবী থানার সাবেক চার পুলিশ সদস্যকে চলতি দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করতে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। চার কর্মকর্তা হলেন- পল্লবী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দাদন ফকির ও মো. নজরুল ইসলাম এবং সাবেক উপ-পরিদর্শক (এসআই) সিরাজুল ইসলাম খান ও মো. রাসেল।
ক্ষতিপূরণ ও পুলিশের চার সদস্যকে চলতি দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহারের বিষয়ে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দিতে পুলিশের মহাপরিদর্শক ও ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারকে বলা হয়।
এছাড়া আরমানকে বেআইনিভাবে আটকের দায় নিরূপণে নতুন করে তদন্তের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক কর্মকর্তা নিযুক্ত করতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দেন। তিন মাসের মধ্যে তদন্ত করে পিবিআইয়ের উপ-মহাপরিদর্শককে (ডিআইজি) আগামী ১১ এপ্রিল আদালতে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়।
সোনালী ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতির ঘটনায় ২৬ মামলার ভুল আসামি পাটকল শ্রমিক জাহালম প্রায় তিন বছর কারাভোগের পর উচ্চ আদালতের নজরে আনার পর মুক্তি পান। একটি জাতীয় দৈনিকে গত ১৮ এপ্রিল এরকম আরেক জাহালমের ঘটনা প্রকাশিত হয়। মাদক মামলায় ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত শাহাবুদ্দিন বিহারির পরিবর্তে আসামি হিসেবে কারাগারে যান ‘নির্দোষ’ আরমান।
প্রকাশিত এ প্রতিবেদন সংযুক্ত করে হাইকোর্টে রিট করেন আরমানের মা বানু। পরে ২০১৯ সালের ৯ জুলাই হাইকোর্ট রুল জারি করেন। সেই রুলের চূড়ান্ত শুনানির পর রায় ঘোষণা করেন আদালত।
এর আগে বাবার নামে মিল থাকায় ভুল আসামি হয়ে প্রায় পাঁচ বছর কারাগারে থাকা আরমানকে ক্ষতিপূরণের ২০ লাখ টাকা দিতে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ স্থগিত চেয়ে আপিল আবেদন করেন রাষ্ট্রপক্ষ। ওই ঘটনায় পল্লবী থানার সাবেক চার পুলিশ সদস্যের বিষয়ে হাইকোর্টের দেয়া আদেশও স্থগিত চেয়ে আবেদন করা হয়েছে।
গত রোববার (১০ জানুয়ারি) আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. নুরুজ্জামানের চেম্বার জজ আদালত জরিমানা স্থগিত চেয়ে করা আবেদন নট টু ডে (আজকে নয়) করেছেন। তবে চার পুলিশ সদস্যের বিষয়ে কোনো স্থগিতাদেশ দেননি বলে জাগো নিউজকে জানিয়েছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাশগুপ্ত। তাদের সিপি (লিভ টু আপিল) করতে বলেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *