আইনজীবীদের আন্দোলনে ২ দিনের ছুটিতে বিচারক আসাদুজ্জামান

নিউজ দর্পণ, ঢাকা: আইনজীবীদের বিক্ষোভের মুখে ঢাকার অতিরিক্ত চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান নূরকে দু’দিনের ছুটিতে পাঠানো হয়েছে।
আজ বুধবার দুপুরে চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের সাথে সাক্ষাৎ শেষে ঢাকা আইনজীবী সমিতির নেতারা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
আইনজীবীদের দাবি, দীর্ঘ দিন ধরে ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূর আইনজীবীদের সাথে খারাপ আচরণ করে আসছেন। তিনি অদৃশ্য কোনো শক্তির আশ্রয়ে ঢাকার আদালত পাড়ায় রয়ে গেছেন।
ঢাকা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ইকবাল হোসেন বলেন, ‘মঙ্গলবার অনাকাঙ্ক্ষিত একটা ঘটনা ঘটছে। একজন আইনজীবীকে ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান নূর অসম্মান করেছেন। ওই আইনজীবী ঢাকা আইনজীবী সমিতির কাছে লিখিতভাবে বিষয়টি জানান। তার প্রেক্ষিতে বুধবার আসাদুজ্জামান নূরের অপসারণের দাবিতে সিএমএম মূল ফটক আটকে অবস্থান নিয়েছি। এরপর আমরা এ বিষয়ে সিএমএম জুলফিকার হায়দারের সাথে আলোচনা করেছি। তিনি আমাদের জানিয়েছেন, তাকে (আসাদুজ্জামান নূর) আপাতত দু’দিনের ছুটিতে পাঠানো হয়েছে।
আইনজীবীকে দুই ঘণ্টা লক আপে রাখার প্রতিবাদে বুধবার সিএমএম আদালতের সামনে অবস্থান নেয় আইনজীবীরা। এর আগে মঙ্গলবার এক আইনজীবীকে দুই ঘণ্টা লক আপে আটকে রাখেন বিচারক আসাদুজ্জামান নূর। পরে ভুক্তভোগী ওই আইনজীবী ঢাকা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দেন।
ভুক্তভোগী আইনজীবী মোহাম্মদ রুবেল বলেন, ‘মঙ্গলবার একটা মামলার শুনানির জন্য আসাদুজ্জামান নূরের আদালতে যাই। সেখানে গিয়ে কোর্ট কখন উঠবে, পেশকারের কাছে সময় জানতে চাই। এরপর তিনি জানান, সাড়ে ১০টায় কোর্ট উঠবে। কিন্তু বেলা ১১টার দিকেও বিচারক না ওঠায় বিষয়টি পেশকারের কাছে জানতে চাই। পরে আদালতের কার্যক্রম শুরু হলে বিচারক আমার মামলা না শুনে পরে আসতে বলেন। পরে গেলে আমাকে দুই ঘণ্টা লক-আপে আটকে রাখেন এবং বলেন, ‘আমার সনদ বাতিল করে দেবেন এবং সব ম্যাজিস্ট্রেটকে বলে দেবেন, আমার মামলা না শোনার জন্য।’ আমি বিষয়টিতে চরম অপমান বোধ করছি এবং ওই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *